মূল পাতায় ফিরুন

২১ মে ২০১৭, বাংলাদেশ সময় ০৮:০৬ পিএম

বিদায় নিলেন জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম, নতুন জেলা প্রশাসকের যোগদান

স্টাফ রিপোর্টার, সুনামগঞ্জ মিরর

[Photo]
সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ থেকে বিদায় নিলেন জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম। সম্প্রতি যুগ্ম-সচিব পদে পদোন্নতি পাওয়া প্রশাসনের এ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে যাচ্ছেন। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হলেন নতুন জেলা প্রশাসক মোঃ সাবিরুল ইসলাম।

রোববার (২১ মে) দুপুরে সদ্যসাবেক জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ সাবিরুল ইসলামের কাছে দায়িত্বভার তোলে দেন। এসময় সাবিরুল ইসলাম জেলা প্রশাসকের চেয়ারে বসেন। তাঁর পাশে বসেন শেখ রফিকুল ইসলাম। তিনি উত্তরসূরিকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার পর বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দেন।

শেখ রফিকুল ইসলামের বিদায় নেয়ার সময় সহকর্মীদের কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে। এর আগে সকালে অনুষ্ঠিত জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক সভায় উপস্থিত সুধীজনদের সামনে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নেন। অশ্রুসিক্ত চোখে তাঁকে বিদায় জানান সকলে। শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, স্বর্গীয় সৌন্দর্য্য ও অসীম সম্ভাবনার একটি উর্বর জেলা সুনামগঞ্জ। সকলকে সাথে নিয়ে সুনামগঞ্জকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে আমি চেষ্টার ত্রুটি করিনি। নতুন কর্মস্থলে যাচ্ছি, কিন্তু সুনামগঞ্জকে নিয়ে যাচ্ছি হৃদয়ের গভীরে করে। তিনি সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ও দোয়া চান।

জেলা প্রশাসক হিসেবে তিনি প্রায় তিন বছর কর্মরত ছিলেন। ২০১৪ সালের জুলাইয়ে যোগদানের পর থেকে তিনি শিক্ষা, স্বাস্থ্য, স্কাউট কার্যক্রমসহ উন্নয়নে নেতৃত্ব দিয়েছেন। প্রাথমিকে ঝড়ে পড়া রোধে তাঁর অসামান্য অবদানের জন্য তিনি সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক হিসেবে মনোনিত হন। ১০০০ এর বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরকারি ও বেসরকারিভাবে তিনি আর্থিক সহায়তা করেছেন। সুনামগঞ্জের বেশিরভাগ প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন। তার নিরন্তর প্রচেষ্টা ও নেতৃত্বে গতবছর প্রাথমিক ঝড়ে পড়া কমেছে ৬.১৪ শতাংশ। তিনি উডব্যাজ প্রাপ্ত স্কাউট সদস্য। তিনি জেলার দু'টি উপজেলাকে স্কাউট উপজেলা ঘোষণা করেছেন। এছাড়া তাঁর নেতৃত্বে সুনামগঞ্জকে বাল্যবিবাহ মুক্ত জেলা ঘোষণা করা হয়েছে। অনলাইনে 'রেডিও সুনামগঞ্জ' চালু করেছেন। সেবাপ্রত্যাশী মানুষের বসার জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নির্মাণ করেছেন 'সেবা চত্বর'। শহরের বিভিন্নস্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেছেন। ডিজিটাল সুনামগঞ্জ নির্মাণে তার অবদানের জন্য তিনি সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক হিসেবে মাননীয় প্রধানন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের কাজ থেকে 'ডিজিটাল এওয়ার্ড' গ্রহণ করেন। এছাড়াও, ঐতিহ্য জাদুঘর, সুরমা ভ্যালী পার্ক নির্মাণসহ বিভিন্ন কাজে তাঁর ভূমিকা ছিল। কর্মস্থলে থাকার পুরোটা সময়ই তিনি মানুষের পাশে ছিলেন, পরিচিত হয়ে ওঠেন জনবান্ধব ও সংস্কৃতিমনা জেলা প্রশাসক হিসেবে।

বিসিএস প্রশাসনের ১১তম ব্যাচের কর্মকর্তা শেখ রফিকুল ইসলাম জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র পরিচালক হিসেবে যোগদান করবেন। তাঁর স্থলাভিষিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ সাবিরুল ইসলাম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ১৫তম ব্যাচের কর্মকর্তা। এর আগে তিনি আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার প্রকল্পের ডেপুটি ডিরেক্টর হিসেবে কর্মরত ছিলেন। নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসককে স্বাগত জানিয়েছেন জেলাবাসী।
মূল পাতায় ফিরুন